spot_img
Homeবাণিজ্যযুক্তরাষ্ট্রের শ্রম অধিকার নীতি নিয়ে দুই সচিব বললেন, দুশ্চিন্তার কিছু নেই

যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম অধিকার নীতি নিয়ে দুই সচিব বললেন, দুশ্চিন্তার কিছু নেই

যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম অধিকারবিষয়ক নতুন নীতিটি শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়; বরং বিশ্বের সব দেশের জন্য প্রযোজ্য—এমন যুক্তি দিয়ে দেশের শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আপাতত দুশ্চিন্তার কিছু দেখছে না। ফলে এ বিষয়ে কোনো আলোচনার উদ্যোগও নেওয়া হচ্ছে না। যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম অধিকারবিষয়ক নীতির কারণে যেসব ব্যবসায়ী দুশ্চিন্তার কথা বলছেন, তার কোনো ভিত্তি নেই বলেও মনে করেন দুই মন্ত্রণালয়ের দুই সচিব।

যুক্তরাষ্ট্র ১৬ নভেম্বর শ্রম অধিকারবিষয়ক নতুন নীতি ঘোষণা করে। তাতে শ্রমিকের অধিকার হরণ, তাঁদের ভয়ভীতি দেখানো ও নির্যাতন করার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বাণিজ্য ও ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বলা হয়েছে।

বাণিজ্যসচিব তপন কান্তি ঘোষ গতকাল মঙ্গলবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘শ্রম অধিকার বাস্তবায়নে বাংলাদেশ সব সময়ই সজাগ। যুক্তরাষ্ট্র সব দেশের জন্য যে শ্রম নীতি করেছে, আমার কাছে মনে হয় না এ নিয়ে আমাদের চিন্তা করার কিছু আছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন শ্রম অধিকারবিষয়ক নীতি ঘোষণার সময় বলেছেন, বিভিন্ন দেশের সরকার, শ্রমিক, শ্রমিক সংগঠন, ট্রেড ইউনিয়ন, নাগরিক সমাজ ও বেসরকারি খাতকে সম্পৃক্ত করে আন্তর্জাতিকভাবে প্রচলিত শ্রম আইন অনুযায়ী শ্রমিকদের অধিকার সুরক্ষায় কাজ করবে যুক্তরাষ্ট্র। বিবৃতিতে বাংলাদেশের শ্রমিকনেতা কল্পনা আক্তারের প্রসঙ্গও তুলে ধরা হয়।

শ্রমসচিব মো. এহছানে এলাহী গতকাল তাঁর কার্যালয়ে প্রথম আলোকে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নতুন শ্রম অধিকার নীতিটি যেহেতু বিশ্বের সব দেশের জন্য করা হয়েছে, ফলে আমাদের দুশ্চিন্তা করার কিছু দেখছি না। শ্রম অধিকার প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এবং আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) পরামর্শ মেনে চলছে বাংলাদেশ। ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সংশ্লিষ্ট শ্রম কর্মকর্তার সঙ্গে মাঝেমধ্যেই বৈঠক হয়। আমাদের কর্মকৃতি নিয়ে তাঁর প্রশংসাই শোনা যায়।’

তবে শ্রমসচিব এ–ও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নীতিটি নিয়ে আমরা সজাগ আছি।’

শ্রম অধিকার নীতি ঘোষণার চার দিনের মাথায় এ ব্যাপারে বাংলাদেশের অবস্থান জানতে গত সোমবার প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানের সঙ্গে দেখা করেন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) দুই সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ, সিদ্দিকুর রহমান; বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি (ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র) আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বৈঠক নিয়ে গতকাল কথা হয় এ কে আজাদের সঙ্গে। তাঁর কাছে প্রশ্ন ছিল, ‘দুই সচিব জানালেন দুশ্চিন্তার কিছু নেই। আপনারা এত উদ্বিগ্ন হয়ে পড়লেন কেন?’

জবাবে এ কে আজাদ বলেন, ‘আমরা উদ্বিগ্ন নই। তবে হঠাৎ যেহেতু নীতিটি এল, যাতে কল্পনা আক্তারের নামটাও উল্লেখ রয়েছে, ফলে আমরা প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানের সঙ্গে বৈঠক করেছি। উপদেষ্টা বলেছেন, কোনো সমস্যা নেই। আমারও আপাতত তা–ই মনে হয়। যদিও বিষয়টা নিয়ে আমরা খোঁজখবর রাখছি।’

Previous article
১ ইসরায়েলের নির্বিচার হামলায় বিধ্বস্ত জাবালিয়া শরণার্থীশিবিরের কয়েকটি ভবন। ২১ নভেম্বর, উত্তর গাজায় ইসরায়েলের নির্বিচার হামলায় বিধ্বস্ত জাবালিয়া শরণার্থীশিবিরের কয়েকটি ভবন। ২১ নভেম্বর, উত্তর গাজায়ছবি: রয়টার্স সাময়িক যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে সম্মত হয়েছে ইসরায়েল ও হামাস। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় নির্বিচার হামলা বন্ধের এ প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে ইসরায়েলের মন্ত্রিসভা। ফলে অন্তত চার দিনের জন্য গাজাবাসী ইসরায়েলি বাহিনীর হামলা থেকে রেহাই পাবে। আজ যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব অনুমোদনের এ খবর জানা গেছে। জানানো হয়েছে, যুদ্ধবিরতির বিষয়ে ইসরায়েল ও হামাসকে সম্মত করতে মধ্যস্থতা করেছে কাতার। ২ গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েলছবি: এএফপি এদিকে গাজায় ইসরায়েলের চলমান হামলায় নিহত হওয়ার সংখ্যা বেড়ে ১৪ হাজার ১২৮-এ দাঁড়িয়েছে। ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসশাসিত সরকার গতকাল মঙ্গলবার এসব কথা জানিয়েছে। ৩ গাজায় দ্রুত অবনতিশীল মানবিক সংকট কমাতে উভয় পক্ষের শত্রুতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিকস জোটের নেতারা গাজায় দ্রুত অবনতিশীল মানবিক সংকট কমাতে উভয় পক্ষের শত্রুতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিকস জোটের নেতারাফাইল ছবি: রয়টার্স ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের যুদ্ধের নিন্দা জানিয়েছেন ব্রিকস জোটের নেতারা। তাঁরা এ যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন। গাজায় দ্রুত অবনতিশীল মানবিক সংকট কমাতে উভয় পক্ষের শত্রুতা বন্ধেরও আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা। বিশ্বের প্রধান উদীয়মান অর্থনীতির পাঁচ দেশের জোট ব্রিকসের নেতারা গতকাল এক ভার্চ্যুয়াল শীর্ষ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান। ৪ দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা প্রিটোরিয়ায় ইসরায়েলি দূতাবাস বন্ধ এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক সাময়িকভাবে স্থগিত করার প্রস্তাবে দক্ষিণ আফ্রিকার পার্লামেন্টের সদস্যরা ভোট দিয়েছেন। গাজায় ইসরায়েলের আগ্রাসন নিয়ে তাদের সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরে দক্ষিণ আফ্রিকার সম্পর্কের তিক্ততা দেখা যাচ্ছে। দক্ষিণ আফ্রিকার এ উদ্যোগকে প্রতীকী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। ৫ স্যাম অল্টম্যান স্যাম অল্টম্যানফাইল ছবি: এএফপি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) পদ খোয়ানোর পর আবার ওপেনএআইয়ে ফিরলেন স্যাম অল্টম্যান। গত শুক্রবার তাঁকে ওই পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছিল চ্যাটজিপিটির উদ্ভাবক প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ। এখন আবার তিনি ওপেনএআইয়ের নিজ পদে ফিরলেন। ৬ উত্তর কোরিয়া গতকাল মঙ্গলবার সামরিক গোয়েন্দা কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া গতকাল মঙ্গলবার সামরিক গোয়েন্দা কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করেছবি: রয়টার্স উত্তর কোরিয়া সফলভাবে একটি সামরিক গোয়েন্দা কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণের দাবি করেছে। চলতি বছর উত্তর কোরিয়ার সামরিক গোয়েন্দা কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণের দুটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। তবে এবার তারা সফল হওয়ার কথা জানাল।
Next article
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments