spot_img
Homeচট্টগ্রাম মহানগরনির্বাচন করবেন না নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, সমর্থন দিলেন নৌকার সনিকে

নির্বাচন করবেন না নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, সমর্থন দিলেন নৌকার সনিকে

নির্বাচনের মাঠ থেকে সরে দাঁড়ালেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী। নানা ঘটনায় আলোচিত-সমালোচিত এই সংসদ সদস্য নৌকার প্রার্থী খাদিজাতুল আনোয়ার সনিকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন না করার ঘোষণা দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারী) চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির নিজ বাসভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, ১৪ দলীয় জোট সমর্থিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী অসাম্প্রদায়িক ধর্মীয় মূল্যবোধ, আধ্যাত্মিকতা ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশনের (বিটিএফ) পক্ষ হতে আমি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপিসহ সর্বমোট ৪২ জন প্রার্থী আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটযুদ্ধে অবতীর্ন হয়েছি।

সংবিধান রক্ষার এই নির্বাচনে আমিসহ বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশন (বিটিএফ)’র অন্যান্য প্রার্থীগণ ব্যাপক প্রচার প্রচারণা ও গনসংযোগ পথসভা চালিয়ে যাচ্ছি। সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী আমেজে আমরা আমাদের কার্যক্রম ব্যাপক ভাবে চালিয়ে আসছি।

আপনারা জানেন যে, আমার নির্বাচনী এলাকা চট্টগ্রাম-২ ফটিকছড়িতে বিগত ১৮ জানুয়ারী হতে অদ্যাবধি পর্যন্ত আমাদের দলীয় প্রতীক ফুলের মালার সমর্থনে ব্যাপক গনসংযোগ ও পথসভা হয়েছে। ফটিকছড়িবাসীর অকুন্ঠ ভালবাসায় বাগানবাজার হতে আব্দুল্লাহপুর পর্যন্ত ১৮টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভার জনসাধারণের ভালবাসা ও সমর্থনে আমি আবেগে আপ্লুত হয়েছি।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১৪ দলীয় জোট নেত্রী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মান জানিয়ে ও ফটিকছড়ির সার্বিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আমি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপি আগামী ৭ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলাম।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, সরকারের কোনো অসুবিধা হতে পারে এমন কিছু করতে চাইনা। নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে ফটিকছড়ি আসন থেকে সরে দাঁড়ালাম। দেশের অন্য আসনগুলোতে আমাদের প্রার্থী থাকবে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সবাই আমাকে ভালবাসে, ফটিকছড়িবাসীও আমাকে ভালবাসে। আমি ফটিকছড়িবাসীর সাথে সবসময় সুখে দুঃখে পাশে ছিলাম, আছি ও থাকবো।

আসনটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসাইন মো. আবু তৈয়ব তরমুজ প্রতীকে, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের মীর মুহামমদ ফেরদৌস আলম চেয়ার প্রতীকে, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মুহাম্মদ হামিদ উল্লাহ মোমবাতি প্রতীকে, জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ শফিউল আজম চৌধুরী লাঙ্গল প্রতীকে, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শাহজাহান ঈগল প্রতীক নিয়ে, বাংলাদেশ সুপ্রীম পার্টির শাহজাদা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ একতারা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। আর বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী ফুলের মালা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments